Uprooted: scar of barbwire on back

ঘটনাটি অনেক অনেক বড় , নাহলে কি আর ৪০ লক্ষ মানুষের নাগরিকত্ব এমন আকস্মিক প্রশ্নের মুখে পড়ে ꓲ সান্ত্বনা আছে – সুযোগ পাবে সবাই নিজের পরিচয় প্রমানের, যেমন সুযোগ পেয়েছিলো চরণদাস গান গাওয়ার , রাজার সামনে ꓲ বাকিটা সবাই জানেন ꓲ বিখ্যাত নেতার পাল্টা-উত্তর শুনলাম, ” আগে Assam Accord বুঝুন , NRC বুঝুন , গুজব রটাবেন না ꓲ ” সাংবাদিকের গর্জন শুনলাম , “আমরা পাল্টা আঘাত করতে জানি, ভারত শুধু ভারতীয়দের, বাংলাদেশী ভারত ছাড়ো “
Assam Accord এর মূল বক্তব্য পড়ার চেষ্টা করলাম, অজানাকে জানার উৎসাহ থেকে শুধু নয়, ভয় থেকেও ꓲ যে দেশের মানুষ পরিস্থিতির শিকারে ১০০ টাকা, দিশি মদ, এক প্লেট বিরিয়ানি ইত্যাদির জন্য নিরপেক্ষভাবে ভোট দেওয়ার গুরুত্ব বোঝেন না ! তাঁরা ASSAM ACCORD এবং ইত্যাদির এর মতো গুরুত্বপূর্ণ এবং দ্বর্থ্যক চুক্তির ব্যাপার-স্যাপার বুঝে ফেললে আপনাদের সকলের , (i mean সক্কলের ) অসুবিধে হবে না তো !
ব্রিটিশরাজের থেকে দেশ স্বাধীন ১৯৪৭-দেশটাকে কেঁটেছিড়ে দুইভাগ করে দেওয়া (গোপনে দেওয়া-নেওয়ার আঁতাতের কানাঘুষোও শোনা যায় !) , দুই ক্ষুদ্র দেশের মাঝে একটি বড় রাষ্ট্র দুই হাতে দুইজনকে নিয়ে চলতে পারতো, সবাই সবার দেশভাগের ক্ষততে মলম দিয়ে সেরে উঠতে পারতো ꓲ কিন্তু হলো না, এমন কত কিছুই তো হয় না, যেমন এই ৪০ লাখ মানুষের অনেকাংশ দাদু-বাবা-ছেলের পরেও ভারত এর নাগরিক হলো না ꓲ ঠাকুমা-দিদিমা-মা-মেয়ে তো বাদই দিলাম, এঁদের তো এখন এইদেশে জন্মানোও নিরাপদ নয় ꓲ ১৯৭১-পুনর্বিচ্ছেদ-ওই যে বললাম, হলো না ! তাই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, গোড়াদের দেওয়া সহোদরের তকমা থেকে বাংলাদেশকে বের করে আনলো পূর্ব-পাকিস্তান আর পশ্চিম-পাকিস্তানের জোট থেকে ꓲ অস্ত্র না থাকলে সব মানুষ যুদ্ধে নামতে ভয় পায়,গরিব মানুষের আবার অস্ত্র !! কত্ত বড়োলোক ধুঁয়ে-মুছে সাফা হয়ে গেলো ꓲ আর কত্তজন একালে দেশের শত কোটি টাকা মেরে দেশ ছেড়ে উবে গেলো ! যাক সেসব কথা ꓲ তা বাসা–ভাঙা পিপীলিকার মতো কেউ গেলো উত্তরে-খানিক পূর্বে-কতকটা পশ্চিমে-মরতে কেন যে gelo না দক্ষিনে ! লক্ষ লক্ষ লাশ ভেসে উঠতো বঙ্গোপসাগরের ঢেউয়ে ! আর এইসব National Register of Citizenship এ তাঁদের ছেঁড়া যেত ꓲ কিন্তু তাও হলো না ! মাঝখান থেকে আসামের মাটিতে সদ্য-গঁজানো ‘যুদ্ধভূমির-মতো-মাতৃভূমি’ ছেড়ে পালানো বাংলাদেশী চারাগাছের শেকড় ছেঁড়ার জন্য ছাত্র-আন্দোলন শুরু হলো ꓲ সবাইকে শান্ত করতে আসলো চুক্তি, ১৯৮৫ তে ꓲ তারপর অনেক গাছ কালের নিয়মে বাড়লো, জন্মালো, বাড়লো – সহজকথায় ভারতের জল-মাটি-হাওয়ায় সার পেয়ে মনে-মনে ভারতীয় গাছ হয়ে গেলো ꓲ কিন্তু ঠিক তাও হতে পারলো না – আজ ৩৩ বছর পর দিন এলো ‘আজ মঙ্গলবার, পাড়ার জঙ্গল সাফ করবার দিন’ ꓲ কেউ বুঝলো না ১৯৮৫ র জঙ্গল আজ ২০১৮ এ বাগান, ফুলে-ফলে-প্রজাপতিতে ভরা বাগান ꓲ
নামজাদা সাংবাদিক যুদ্ধ করবেন, বললেন ꓲ পাল্টা যুদ্ধ ꓲ শুধু cobrapost এর সময় একটা লেখা দিতে চাই

অযুত কোটি উড়ে যায়
খবর বেঁচতে গিয়ে
দশরথ কেনে জমি
মানুষ বেঁচে দিয়ে

আসলে কি বর্তমানে ধর্মের নাম দেশকে যা বোঝানো হচ্ছে তার থেকে একটু স্বাদবদলের জন্য ১৯৮৫ তে আন্দোলন স্থিমিত করতে যা বোঝানো হয়েছিল তাকে ফলপ্রসূ করার দরকার হলো ꓲ অনেক সাংবাদিকের কথায়, যাঁরা এর বিরোধিতা করছেন তাঁরা ভোটের রাজনীতি করেন ꓲ আমি সকলরকম ভোটের প্রতি অনাস্থা রেখে শুধু বুঝতে চাই বর্তমান সময়ে এই উৎখাতের প্রাসঙ্গিকতা কি ??

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.